যে কোনো সময় লেখা পোস্ট করা যায় । লিঙ্ক - https://webtostory.com/to-post-the-text/

ব্যক্তি স্বাধীনতার নামে রাস্তা ঘাটে ঘনিষ্ঠ হওয়া

আজ ভাইবোনের সম্পর্ক আপনার মনে হচ্ছে হতে পারে, কাল তো বলবেন অমুক উপজাতি বাবা, বা মা এর সঙ্গে যৌনাচারে লিপ্ত, তাই আমরাও হব। ভয় হয় কোনদিন বলবেন না তো ক

 

Story and Article

স্বাধীনতা ও স্বেচ্ছাচার -শম্পা সাহা

সমাজ কোন দিকে এগোচ্ছে? কেন আমরা ভাববো? আমাদের কি মাথা ব্যথা?
ভুললে চলবে না পাশের বাড়ি আগুন লাগলে আপনার বাড়ির চাল ধরতে বেশি সময় নেবে না?
একে একে ভাবতে হবে সমাজ কোন দিকে এগোচ্ছে? এক দিশাহীন পথে। ইয়ং জেনারেশন কাদের নিজেদের আইডল ভাবছে? যারা চট্ করে খ্যাতি পেয়ে লাইম লাইটে! তাছাড়া সবচেয়ে বেশি বিকোচ্ছে বোধহয় যৌনতা। সাহিত্যে ও তাই। একটু আঁশটে গন্ধ লাগিয়ে দিলেই তা মারকাটারি। না কখনোই এটা নয় যে সব সাহিত্য ই এই রকম। কিন্তু যুব সমাজ কি চাইছে, কি তাদের বেশি পছন্দ!?
হ্যাঁ তারা যৌনতা টাই বেশি চাইছে! সাহিত্যে ফুল লতাপাতার চেয়ে স্তন টানছে অনেক বেশি। না আমার তাতে বিন্দুমাত্র আপত্তি নেই। কেউ পরকীয়া করলেও আমি তা সমর্থন না করলেও নিন্দার কিছু দেখি না। এটা ব্যক্তি স্বাধীনতার যুগ। কিন্তু স্বাধীনতা আর স্বেচ্ছাচার এক নয়।
গত দুদিন আগের একটা ঘটনা আমার এক পুরোনো স্মৃতি উসকে দিল। প্রায় বছর দুয়েক আগে সালটা 2019,ফেব্রুয়ারি,আমার এক অতি প্রিয় মানুষ আমায় বলেছিল কোনো বোন যদি তার ভাই বা দাদার মধ্যে নিজের স্বামীকে দেখে এতে খারাপ কি আছে? যুক্তি হিসেবে বলেছিল, কোনো কোনো ধর্মে তো ভাইবোন বিবাহ চলে, বা দক্ষিণ ভারতে তুতো ভাইবোনে বিয়ে খুব সাধারণ ঘটনা। তাকে আমি সে মুহুর্তে কোনো উত্তর দিই নি, আসলে তাকে এতটাই সম্মান করতাম বা বলা ভালো, ভালোবাসতাম যে তাকে আঘাত করতে মন চায়নি। কিন্তু উত্তর টা সেদিন ও তৈরিই ছিল। যদি সে দেখো তো জানুক আমি কি ভাবি এ বিষয়ে।
হতে পারে, নিশ্চয়ই হতে পারে। তাতে আমার আপত্তির কিছু নেই, তবে কোনও কোনও উপজাতি তো মৃত মানুষের ঘিলু খায়, আমরা কি তাহলে তাই খাবো? যুক্তি হিসেবে তাই দেখাবো?
আবার কেউ কেউ বলে ব্যক্তি স্বাধীনতা! ঠিক ভাইবোনের ইচ্ছে হয়েছে তাই তারা নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক জড়িয়েছে।আবার কেউ কেউ বলে খোলাখুলি ঘনিষ্ঠতা ও সাধারণ কারণ এটা ব্যক্তি স্বাধীনতা। ঠিক! তাহলে এরপর আর কেউ পায়খানা বাথরুম ব্যবহার করবে না রাস্তা ঘাটেই হাল্কা হব। তাতে আপনি কিন্তু গন্ধ ছাড়ছে বলতে পারবেন না।
ব্যক্তি স্বাধীনতার নামে রাস্তা ঘাটে ঘনিষ্ঠ হওয়া, বা অন্য গোষ্ঠী তে চলে বলে ভাইবোনের যৌন সম্পর্ক যদি আপনি মেনে নেন, কাল আপনার বাড়ির সামনে কেউ নোংরা ফেলবে, সেটা তার ব্যক্তি স্বাধীনতা। আর আপনি তার সঙ্গে তেড়ে ঝগড়া করবেন, এটা আপনার ব্যক্তি স্বাধীনতা।
আজ ভাইবোনের সম্পর্ক আপনার মনে হচ্ছে হতে পারে, কাল তো বলবেন অমুক উপজাতি বাবা, বা মা এর সঙ্গে যৌনাচারে লিপ্ত, তাই আমরাও হব। ভয় হয় কোনদিন বলবেন না তো কুকুররা আড়াল খোঁজে না আমরাও খুঁজবো না, কারণ ওরা ও প্রাণী আর আমরাও।
আমার এই প্রতিবেদনের একটাই উদ্দেশ্য, দয়া করে স্বাধীনতা আর স্বেচ্ছাচার গুলিয়ে ফেলবেন না। যা করবেন ভেবে করবেন, পরবর্তী প্রজন্ম কে কি শেখাচ্ছেন। ব্যস আর কিছু না।

Post a Comment