যে কোনো সময় লেখা পোস্ট করা যায় । লিঙ্ক - https://webtostory.com/to-post-the-text/

যা চিত্তে বলে, যা প্রবৃত্তি তাই করে,

এই যুগে এলে আমার একটি মাত্র স্বপ্ন ছিল তোমাকে ঘিরে! অনলে জ্বলা বসন্ত ভরা সোনার দেহ ; অঙ্গ দিয়া ভী গ্রামঃ তেলিডাঙ্গা, থানা // নড়াগাতী, জেলা ঃনড়াইল

 

মোঃ  মামুন মোল্যা

তোমাকে নিয়ে স্বপ্ন

মোঃ  মামুন মোল্যা


ওরা কলেজের দুহিতা, ওরা নাকি মস্ত স্বাধীন?

ওরা হোটেলে থাকা ললনা, কারুর অধীনে চলে না।

যা চিত্তে বলে, যা প্রবৃত্তি তাই করে,

গুরুর উপদেশ দুর্বহ “স্বাধীনতার হাওয়া পেয়ে ;

ওরা ভারী বেপরোয়া কোনো রীতি -নীতির ধার ধরে না।

খাঁটি পথ, তাদের কাছে আউলা -ঝাউলা মনন,

মেয়াদ উত্তীর্ণ ওয়াইন খাওয়া যেনো এক ঝাঁক পাগলী।

স্বাধীনতা পুঁজি করে যাকে চোখে ধরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে,

প্রণয়ে ভর করে হোটেলের ইতি মহাকাব্য লেখা;

রূপের অনলে দগ্ধ করে, গোপন অঙ্গর সঙ্গ পেতে দিশাহারা ,

যে তাদের পশ্চাৎ নিছে ” পছন্দ না হলে সুখ্যাতি বিনাশ ;

ধর্ম! লোকে কি বলে? মেনে নেবে কি তাদের অপকর্ম?

পবিত্র গ্রন্থ এড়িয়ে চলে! লোকের কথায় গাত্র দাহ নেই।

সভ্য সমাজ তাদের কি ভাইরাস বলে মনে করে?

ভদ্র ছেলে যদি জানে, “বিবাহ তো দূরে থাক ;

ছায়াও কি দেখতে চাইবে?

না!

কারণ?

বেশ্যাদের রূপের অঙ্গে ক্যান্সার জড়িত ;

ভালো দিকে ডাকলে গাত্রে অগ্নি জ্বলে ;

কারণ সে যে রোগে আক্রান্ত!

নতুন টাকা নতুন পুরুষের সঙ্গ পেয়ে মজা লওয়া থেকে ক্ষান্ত হবে না।

ওরা সমাজ, সংসার, ধর্মের ধার ধারে না ;

চাই এলোমেলো তসলিমা নাসরিনের মতো নষ্ট তনয়া হতে।

তসলিমা নাসরিন মাদি যুগে এসেছিলে কেনো গো?

তোমার অঙ্গের দাহ মিটানোর মতো কেহো ছিল না  ;

যাদের নিয়ে রাত যাপন করেছো তারা ছিল মাদি ;

তাই নিত্য দিন পুরুষ বাদ দিবার নেশার ঘোরে ছিলে ;

প্রয়োজনে হোটেলে মিলন ঘর করেছো ;

কালো জেনেও চাও কি স্বাধীনতা?

এই যুগে এলে আমার একটি মাত্র স্বপ্ন ছিল তোমাকে ঘিরে!

অনলে জ্বলা বসন্ত ভরা সোনার দেহ ;

অঙ্গ দিয়া ভীষণ ভাবে ধ্বংস করতাম!

নষ্ট তরুণী হবার ভুল ধারণা অন্ত হত।

শিষ্যবর্গ থাকতো না বাংলার জমিনে ;

ত্রাণ পেতো রমণী বেশ্যা হবার থেকে!

সংসার হত চির সুখী ময়!

জাতি ত্রাণ পেতো জারজ সন্তান থেকে!

অকালে ঝরতনা বীর সৈনিক ওদের হাতে।




গ্রামঃ তেলিডাঙ্গা, থানা  //   নড়াগাতী, জেলা ঃনড়াইল

Post a Comment